Benefits of Ficus Religiosa (Sacred Fig) - অশ্বত্থ গাছের বনৌষধি গুনাগুন ও উপকারিতা


অশ্বত্থ

অশ্বত্থ বেশ বড় গাছ, অনেকটা বট গাছের মতো এই দুটি গাছের মূল পার্থক্য হলো, বটপাতার অগ্রভাগ গোলাকৃতি আর অশ্বত্থ পাতার সূঁচালো লম্বা সারা ভারতেই এই গাছ দেখা যায়, এবং সর্বস্থানেই এটি পবিত্র গাছরূপে বিবেচিত হয় অশ্বত্থ গাছের ফল, পাতা, গাছের ছাল, পাতার কুঁড়ি বা মুকুল ঔষধরূপে ব্যবহৃত হয় অশ্বত্থ গুরু, রুক্ষ, কষায় রসযুক্ত, দুষ্পাচ্য, বর্ণ প্রসাদক, শীতবীর্য এবং কফ-সংহারক রূপে ব্যবহৃত হয়ে থাকে
রোগে ব্যবহার: -
1. ধাতুদৌর্বল্য - অশ্বত্থ গাছের মুকুল এবং মূলের ছাল নিয়ে জলে সিদ্ধ করে কাথ তৈরি করে নিন এবার ছেঁকে নিয়ে এক ছটাক পরিমাণ কাথ নিয়ে তার সঙ্গে মিছরী মধু মিশিয়ে খেলে ধাতুদৌর্বল্যতা দূর হয়
2. ফোঁড়াতে - ফোড়া উঠলেই সঙ্গে সঙ্গে অশ্বত্থ গাছের পাতা ফোঁড়ার উপর সোজা দিকে রেখে বেঁধে দিন, ফোঁড়া বসে যাবে
3. বাত রক্তে রক্তদুষ্টিতে - অশ্বত্থ গাছের ছাল এনে ক্কাথ প্রস্তুত করুন এবার ছেঁকে নিয়ে 5 তোলা পরিমাণ কাথ মধুসহ খেলে বাতরক্ত রক্তদুষ্টি প্রশমিত হয়
4. জ্বরে প্রবল তৃষ্ণা বা বমিভাবে অশ্বত্থ-এর শুকনো ছাল নিয়ে আগুনে পোড়ান তারপর জ্বলন্ত অবস্থায় একটি পাত্রে জল রেখে তাতে ফেলে দিন এবার ছেঁকে নিয়ে সেই জল সারাদিনে কমপক্ষে তিনবার একটু একটু করে রোগীকে খেতে দিন এইসব উপসর্গ কমে যাবে
5. পোড়া ক্ষতে - অশ্বত্থ গাছের ছাল পুড়িয়ে চূর্ণ করে পোড়া ক্ষতে প্রলেপ দিন, ক্ষত সেরে যাবে
6. পিত্তরোগে - অশ্বত্থ গাছের মূলের ছাল এক ছটাক পরিমাণ নিয়ে, আধসের জলে সেদ্ধ করুন আধধোয়া জল অবশিষ্ট থাকতে নামিয়ে ছেঁকে নিন এই ক্কাথ তিন তোলা পরিমাণ নিয়ে মধু মিশিয়ে এক সপ্তাহ খেলে উপকার হয়
7. যোনি-সংক্রান্ত দোষে অশ্বত্থ-এর ছাল সেদ্ধ করে কাথ তৈরি করুন তারপর ছেঁকে নিয়ে ঐ কাথ এক ছটাক পরিমাণ আতপ চাল ধোওয়া জল খেতে দিন


To Buy Sacred Fig (অশ্বত্থ) Click Here :
 

Post a Comment

0 Comments